জাতীয় এসএমই ব্যবসায় পরিকল্পনা প্রতিযোগিতা-২০১৬ কার্যক্রমসমূহ

প্রচার-প্রচারণাঃ

  •    বিভিন্ন ট্রেড বডিজ/এসোসিয়েশন, বিশ্ববিদ্যালয় ও ব্যাংকে পত্র প্রেরণ
  •    বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবসায় পরিকল্পনা প্রতিযোগিতা বিষয়ে ওয়ার্কশপ
  •    ওয়েবসাইট
  •    লিফলেট বিতরণ ও পোস্টারিং
  •    ব্যানার ও ফেস্টুন
  •    এসএমএস
  •    ই-মেইল
  •    পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রচার
  •    পত্রিকায় খবর ও ফিচার প্রভৃতি।


বিজনেস প্ল্যান টেমপ্লেটঃ
প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত আবেদনকারীদের মধ্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের বিশ্লেষণসমৃদ্ধ টুলস্সহ বিজনেস প্ল্যান এর টেমপ্লেট বিতরণ করা হবে। টেমপ্লেট অনুযায়ী পূর্ণাঙ্গ বিজনেস প্ল্যান তৈরী করে অংশগ্রহণকারীরা তা এসএমই ফাউন্ডেশনে জমা দিবেন। 

বিজনেস প্ল্যান তৈরী-বিষয়ক কর্মশালা আয়োজনঃ
প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রতিযোগিদের ব্যবসায় পরিকল্পনা তৈরীর কৌশল এবং নিয়মাবলীর উপর প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হবে। ৩টি ব্যাচে ৫০ জন করে ৩ দিনের কর্মশালায় প্রশিক্ষণার্থীরা অংশগ্রহণ করবেন। প্রশিক্ষণ শেষে অংশগ্রহণকারীরা নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে স্ব স্ব বিজনেস প্ল্যান তৈরী করে এসএমই ফাউন্ডেশনে জমা দেবেন।

আবেদন/ বিজনেস প্ল্যানসমূহ প্রাথমিকভাবে যাচাই বাছাইয়ের জন্য কমিটিঃ
জমাকৃত আবদনসমূহ যাচাই-বাছাইয়ের জন্য একটি যাচাই-বাছাই কমিটি গঠন করা হবে। বাছাই কমিটি প্রাথমিক আবেদনসমূহ এবং পরবর্তীতে বিজনেস প্ল্যানসমূহ সুনির্দিষ্ট মূল্যায়ণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পরীক্ষা, পর্যবেক্ষণ ও পর্যালোচনা করে একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রস্তুত করবেন এবং চূড়ান্ত বিজয়ী নির্বাচনের জন্য একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন জুরি বোর্ডের সামনে উপস্থাপন করবেন।

জুরি বোর্ডঃ
দেশের খ্যাতিমান, স্বনামধন্য, বিজ্ঞ প্রোফেশনাল ও এক্সপার্টগণের সমন্বয়ে একটি জুরি বোর্ড গঠন করা হবে। জুরি বোর্ড ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের বিজনেস প্ল্যান যাচাই এবং পর্যালোচনাপূর্বক যোগ্যতার ক্রমানুসারে ৩ (তিন) জনকে বিজয়ী নির্বাচিত করবেন।

সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানঃ
‘‘জাতীয় এসএমই ব্যবসায় পরিকল্পনা প্রতিযোগিতা-২০১৬” এর সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার বিতরণ করা হবে। সমাপনী অনুষ্ঠানটি আগামী মে ২০১৬ মাসে অনুষ্ঠিত হবে বলে আশা করা যায়।